Home / Article / দেয়ারখুশি কি পৌঁছবে পাওয়ার খুশি পর্যন্ত

দেয়ারখুশি কি পৌঁছবে পাওয়ার খুশি পর্যন্ত

প্রতিবারের মতো এবারের ঈদেও বিভিন্ন রকম কমিউনিকেশন আর অফার নিয়ে বাজারে নেমেছে ব্র্যান্ডগুলো। তার মধ্য অনেকেরই ভালো লেগেছে ব্র্যাকের সহযোগিতায় গ্রামীণফোনের দেয়ারখুশি ক্যাম্পেইনটি। আবার অনেকেরই মতামত কৈ এর তেলে কৈ ভাঁজা। রিফিউজ, রিডিউজ, রি-ইউজ উৎসাহিত করা এই সময়ে এই ভাবনা প্রশংসার দাবি রাখে নিঃসন্দেহে।


তবে যে ক্যাম্পেইন বিভিন্ন মাধ্যমে চলছে তাতে যথেষ্ট আশাব্যঞ্জক তথ্য নেই প্রিন্ট, অনলাইন বা টেলিভিশনে। যেমন – ১) যাকে ফোনটি দেয়া হবে, সেই ব্যক্তি নির্বাচনের পদ্ধতি কি? তাকে খুঁজতে কোন ক্যাম্পেইন কিন্তু চোখে পরছেনা আমাদের। ‘যদি আপনি মনে করেন ইন্টারনেট সংযোগসহ একটি স্মার্টফোন পেলে আপনার জীবন পাল্টে যাবে, তবে আমরা আছি দেশবাসীকে নিয়ে আপনার পাশে, আবেদন করুন’ – বলে কোন বিজ্ঞাপন কিন্তু দেখতে পাচ্ছিনা আমরা। গ্রামীণফোনের বিজ্ঞাপনগুলোতে যেসব চরিত্রকে সম্ভাব্য স্মার্টফোন গ্রহীতা হিসাবে দেখি তাদেরকেই যদি উদাহরন হিসাবে নেই, তাহলে এই সঠিক মানুষটি হওয়ার যোগ্যতা কি? একজন অনলাইন ফ্রিলেন্সারের নাহয় ট্রেনিংয়ের সনদপত্র থাকতে পারে। ক্রিকেটার কিংবা সার্ফারের নাহয় কোচের প্রত্যয়ন। আমাদের ট্যুরিস্টগাইড বা আরও এরকম পেশার লোকদের সনদ দেবে কে? ইউনিয়ন পরিষদ মেম্বার/ চেয়ারম্যান নাকি সবাইকেই নির্বাচিত করবেন ব্র্যাক-এর নিয়জিত কর্মচারী/কর্মকর্তারা? এই প্রক্রিয়াটি সবচেয়ে বেশি গুরুত্বের দাবি রাখে।

 

 

২) যে ব্যক্তি ফোনটি দিচ্ছেন, তিনি কি পরবর্তীতে জানতে পারবেন কাকে তার ফোনসেটটি দেয়া হয়েছে। অথবা কোন নির্দিষ্ট তালিকা থেকে কাউকে নিজে মনোনীত করে দেয়ার সুযোগ পাবেন কি একজন দাতা। একজন দাতার জন্য এই তৃপ্তি নিশ্চিত করতে হবে। তবেই আরও বেশি হাত এগিয়ে আসবে এমন উদ্যোগে।

৩) হ্যান্ডসেট গ্রহণ করা হবে ঈদুল ফিতর পর্যন্ত কিন্তু কবে বিতরণ সম্পন্ন করা হবে তার কোন নির্দিষ্ট তারিখ নেই। এই প্রশ্নগুলোর উত্তর ক্যাম্পেইনটিতে পাওয়া গেলে হয়তো আরও বেশি মানুষ অংশগ্রহনে অনুপ্রাণিত হতেন । দানের কম্বল-টিন থেকে শুরু করে জামা–পাঞ্জাবী কোন কিছুই ঠিক মানুষের হাতে না পৌঁছানো, আত্মসাৎ বা স্বজনপ্রীতির ইতিহাস আমরাই তৈরি করেছি, সেটা শীত, বন্যা, ঈদ – যেকোনো উসিলায়। এরই ধারাবাহিকতা চলতে থাকলে বড় ব্র্যান্ড আর কর্পোরেটদের উপর আরেকদফা আস্থা হারাবে আশাবাদী মানুষ।
ক্যাম্পেইন যখন শুরু হয়েছে, শেষও হবে। শেষটা কতো সুষ্ঠু-সুন্দর ভাবে হলো সেটার জন্য অপেক্ষা করবেন অনেকেই অন্তত যারা হ্যান্ডসেটগুলো দিবেন তাদের আগ্রহ থাকবে জানার, কার জীবনে স্বপ্নপূরণে কতটা সহযোগিতা করতে পারলেন তিনি।

 

x2015_07_01_7_0_b.jpg

advertising archive bangladesh